এক হালি গোল দিয়ে ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ

অথর
কুষ্টিয়া অনুসন্ধান নিউজ ডেক্স :   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ৫:১৪ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 109 বার
এক হালি গোল দিয়ে ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ

একঝাঁক তারকা ফুটবলারের চোটের কারণে বেশ শঙ্কায় ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। স্প্যানিশ লা লিগায় সবশেষ ম্যাচে হারতে হয়েছে। যে কারণে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে সেরা একাদশ সাজানো নিয়েই চিন্তিত ছিলেন দলটির কার্লো আনচেলোত্তি। শেষ পর্যন্ত সব শঙ্কা কাটিয়ে দাপুটে জয়েই ফাইনালে উঠেছে স্প্যানিশ পরাশক্তিরা। বুধবার রাতে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মিসরের ক্লাব আল আহলিকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনাল মঞ্চের টিকিট কেটেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

মরক্কোর রাজধানী রাবাতের প্রিন্স মোলে আব্দুল্লাহ স্টেডিয়ামে রিয়ালের হয়ে একটি করে গোল করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা ভিনিসিয়াস জুনিয়র, উরুগুয়ের সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার ফেডেরিকো ভালভার্ডে, ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার রডরিগো ও স্পেনের তরুণ মিডফিল্ডার সার্জিও আরিবাস। আল হিলালের হয়ে পেনাল্টি থেকে সান্ত¦নার একমাত্র গোলটি করেন তিউনিসিয়ার লেফট ব্যাক আলি মালুল। শনিবার রাতে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল মহারণে মুখোমুখি হবে রিয়াল ও আল হিলাল।

ইনজুরিতে থাকা দুই তারকা ফরোয়ার্ড করিম বেঞ্জামা ও গোলরক্ষক থিবো কোর্তায়াকে ছাড়াই মাঠে নামে রিয়াল। তবে ইনজুরি কাটিয়ে মৌসুমে প্রথমবারের মত দলে ফেরেন ডিফেন্ডার ডেভিড আলাবা। সেমিফাইনালে পথে মেজর লিগ সকারের দল সিটল সাউন্ডার্স ও অকল্যান্ড সিটিকে হারানো আল আহলি বেশিরভাগ সময়ই নিজেদের রক্ষণভাগ সামলাতে ব্যস্ত ছিল। রডরিগোর শট অল্পের জন্য গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি। ব্রাজিলের উঠতি তারকার শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়।
বিরতির আগ পর্যন্ত আহলির অস্ট্রিয়ান কোচ মার্সেও কোলারের পরিকল্পনা ছিল রিয়ালকে রুখে দেয়া। সেই পথেই তারা এগিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু ভিনিসিয়াস দুর্দান্ত মুন্সিয়ানায় ৪২ মিনিটে রিয়ালকে এগিয়ে নেন। বিরতির পরপরই (৪৬ মিনিট) ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ভালভার্ডে। বিশ^কাপ শেষে ফেরার পর থেকে এই উরুগুইয়ান তারকা খুব একটা ভালো খেলতে পারেননি।

গ্যালাক্টিকোরা আশা করছে নভেম্বরের পর প্রথমবারের মতো গোল পাওয়া ভালভার্ডের আত্মবিশ^াস ফিরতে এই গোল সহায়তা করবে। এরপর ভিনিসিয়াসকে ডি বক্সে ফাউল করা হলে রিয়াল পেনাল্টির জোরালো আবেদন করেছিল। কিন্তু ভিএআর আবেদন বাতিল করে দেয়। এই ম্যাচে ফের লেফটব্যাক হিসেবে মাঠে নামেন এডুয়ার্ডো কামভিনগা। কিন্তু ফেরাটা সুখকর হয়নি ফরাসি তারকার। বক্সের মধ্যে হুসেন এল শাহাতকে ফাউল করেন এই ডিফেন্ডার। ফলে পেনাল্টি পায় আহলি। ৬৫ মিনিটে স্পট কিক থেকে রিয়াল গোলরক্ষক আন্দ্রি লুনিনকে বোকা বানিয়ে গোল করেন আলি মালুল। এই গোলে ম্যাচে ফেরার স্বপ্ন দেখতে থাকে আল আহলি।
এরপর আন্ডারডগদের হয়ে আফাসা সমতা ফেরানোর সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করেন। মিসরীয় প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত অপরাজিত থাকা আল আহলির সব আশা শেষ হয়ে যায় ম্যাচের যোগ করা সময়ে। এই সময়ে দুই গোল আদায় করে সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রিয়াল। ৯০+২ মিনিটে গ্যালাক্টিকোদের তিন নম্বর গোল করেন রডরিগো। ৯০+৮ মিনিটে আহলির কফিনে হালি পূরণ করা গোলটি করেন আরিবাস। ২০২২ সালের আগস্টে ইউরোপিয়ান সুপার কাপ জয়ের পর এখন মৌসুমে দ্বিতীয় শিরোপার হাতছানি রিয়ালের। ফাইনালে এ লক্ষ্যেই মাঠে নামবে স্প্যানিশ লা লিগা ও উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।
জিতলেও রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলোত্তি সন্তুষ্ট হতে পারেননি দলের খেলায়। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর আমরা ভেবেছিলাম খেলা শেষ! এরপর একটু বেশিই ড্রিবল করতে শুরু করেছিলাম। আমাদের ছন্দ নষ্ট হয়েছে, নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছি। আমরা ভেবেছিলাম যে ম্যাচ জিতেই গেছি। কিন্তু ফুটবল এভাবে হয় না। আনচেলোত্তি আরও বলেন, আমরা নির্ভার হয়ে গিয়েছিলাম। এটা আগুন নিয়ে খেলার মতো, এমনটি হতে দেওয়া যাবে না। আমাদেরকে টানা ভালো খেলে যেতে হবে। ম্যাচের শেষ পর্যন্ত মনোযোগ ধরে রাখতে হবে। এই টুর্নামেন্টে আমাদের পাওয়ার খুব বেশি কিছু নেই; হারানোর আছে অনেক কিছু।

সংবাদটি শেয়ার করুন