রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় প্রাক্তণ সৈনিক সংস্থার বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতি শামছুল সম্পাদক মতিয়ার নির্বাচিত শিল্প জগতে আমাদের অনেক সুনাম রয়েছে-মোঃ মজিবর রহমান ৮ জেলায় সিত্রাংয়ের আঘাতে নিহত ১৫ সিত্রাং উপকূলে আঘাত হানতে শুরু করেছে মাটি আর মানুষের কর্মবীর মজিবর রহমান ॥ ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী হোক আগামীর সুন্দর পথচলা ৬ নভেম্বর এইচএসসি শুরু, সব কোচিং সেন্টার বন্ধ সাতক্ষীরার নবাগত পুলিশ সুপারকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান- হানিফ এমপি দেশের অর্থনীতিতে শক্ত অবস্থানে রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সরকার ও এই নির্বাচন কমিশনের অধীনেই হবে -হানিফ

চমেকে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, তদন্ত কমিটি গঠন

কুষ্টিয়া অনুসন্ধান ডেক্স:
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৬২৬ পাঠক পড়েছে

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে (চমেক) আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাতে চমেক ছাত্রবাসে মারধরের ঘটনার জের ধরে শনিবার সকালে দুই দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় উভয় পক্ষের তিনজন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে। বিকাল ৫টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘটনা তদন্তে একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- মাহফুজুল হক (২৩), নাইমুল ইসলাম (২০) এবং আকিব হোসেন (২০)। তিনজনই চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন আছেন।

চমেক সূত্র জানায়, শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় চমেকের প্রধান ছাত্রাবাসে ঘটনার সূত্রপাত। আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী দুই ছাত্রলীগ কর্মীকে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর অনুসারীরা মারধর করে। এ ঘটনার জের ধরে শনিবার সকাল ৯টায় দুই গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে মহিবুল হাসানের অনুসারী এক ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধর করা হয়। এরপর থেকেই ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চমেক একাডেমিক কাউন্সিল জরুরি সভা ডাকে।

চমেক অধ্যক্ষ সাহেনা আকতার জানান, একাডেমিক কাউন্সিলের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি বিকাল ৫টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ঘটনা তদন্তে অধ্যাপক মতিউর রহমানকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

পাঁচলাইশ থানার ওসি জাহিদুল কবির বলেন, শুক্রবার রাতের ঘটনার জের ধরে সকালে ছাত্রলীগের দুইপক্ষ মারামারিতে লিপ্ত হয়। এতে কয়েকজন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি।

এর আগে গত ২৭ এপ্রিল রাতে ছাত্রলীগের দুইপক্ষে মারামারির ঘটনা ঘটে। পরদিন ২৮ এপ্রিল উভয়পক্ষের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত পাঁচজন আহত হয়। আহতদের মধ্যে নাছির গ্রুপের অনুসারী দুইজন ইন্টার্ন চিকিৎসক ছিলেন।

সংঘর্ষের মধ্যে ইন্টার্ন চিকিৎসক আহত হওয়ার ঘটনায় দোষীদের শাস্তি দাবি, ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের হামলার ঘটনায় তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ, ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসীদের বহিষ্কার, ক্যাম্পাস ও ছাত্রাবাসে ইন্টার্নদের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

© All rights reserved © 2021-2022 । কুষ্টিয়া অনুসন্ধান ।
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580