শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
২ অক্টোবর কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব-কেপিসির নির্বাচন কুষ্টিয়ায় রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির দৌলতপুরে বন্যার্তদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কুষ্টিয়ায় মোটর সাইকেল গ্যারেজ মালিক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি শহিদুল সম্পাদক জরিফ কুষ্টিয়ায় চেম্বার অব কমার্স’র দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ফলাফল প্রকাশ কুষ্টিয়ায় চেম্বার অব কমার্স’র দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন পুলিশ জনগণের বন্ধু তাঁরই প্রমাণ দিয়ে চলেছেন সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ আমিরাতে ঘানিকে মানবিক আশ্রয় কুষ্টিয়ায় শিশু জান্নাতুল হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছেন পুলিশ সুপার খাইরুল আলম !! সাতক্ষীরায় ট্রাফিক পুলিশের সফলতা সাত মাসে জরিমানা আদায় ৩০ লক্ষ টাকা কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির ফারুক আহমেদ পিনুর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

সাতক্ষীরায় ট্রাফিক পুলিশের সফলতা সাত মাসে জরিমানা আদায় ৩০ লক্ষ টাকা

কাজি মনোয়ারুল হক মুন্না, সাতক্ষিরা
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ১১ আগস্ট, ২০২১
  • ১৮৮ পাঠক পড়েছে

সাতক্ষীরা ট্রাফিক পুলিশ করোনাকালীন সময়ে রেকর্ড পরিমাণ জরিমানা আদায় করেছে। গত ৭ মাসে জেলার বিভিন্ন সড়কে বে-আইনিভাবে চলাচলকারী মোটরযান থেকে এক হাজার একশ’ তিনটি মামলার মাধ্যমে প্রায় ৪০ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে জেলা ট্রাফিক বিভাগ। তবে, আইনের সঠিক প্রয়োগ ও বর্তমান মোটরযান আইনে জরিমানার পরিমান বেশি হওয়ায় মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির কারণে দুর্ঘটনা অনেক কমেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট কর্তকর্তারা।

জেলা ট্রাফিক পুলিশ অফিস থেকে জানা যায়, ২০২০ সালের ২৪ ডিসেম্বর থেকে ২০২১ সালের ৩১ জুলাই পর্যন্ত জেলায় মোটরযান আইনে মামলা করা হয়েছে এক হাজার একশ’ তিনটি। এসব মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ৩৯ লাখ ৫১ হাজার পাঁচশত টাকা।

সেখান থেকে আরও জানা যায়, এক হাজার একশ’ তিনটি মামলা থেকে নিষ্পত্তি হয়েছে ৮৭৪টি মামলা। নিষ্পত্তিকৃত মামলা থেকে ইতোমধ্যে আদায় করা হয়েছে ২৯ লাখ ৯৮ হাজার পাঁচশত টাকা। বাকি ২২৯ টি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। যা থেকে আরও আদায় হবে ৯ লাখ ৫৩ হাজার টাকা।

জেলার ট্রাফিক ইনসপেক্টর (টিআই) মো. কামরুজ্জামান বলেন, করোনাকালীন বিধি-নিষেধ ও লকডাউনের সময় নিয়মিত চেকপোস্ট বসিয়ে জেলা ট্রাফিক পুলিশের একাধিক টিম চলাচলকারী অবৈধ মোটরযানের বিরুদ্ধে এসব মামলা দিয়েছে। টানা লকডাউনে মানুষকে ঘরবন্দি রাখা দায় হয়ে পড়েছে। অনেকে বিশেষ প্রয়োজনে, আবার অনেকে নানা অজুহাতে বাইরে বের হয়ে আসছেন।

তিনি আরও বলে, ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে অবৈধ মোটরযানের বিরুদ্ধে সব সময়ই অভিযান পরিচালিত হয়। বৈধ কাগজপত্র ছাড়া মোটরযান বের হলেই জরিমানা ও মামলা দিয়ে থাকি। তবে, আইনের সঠিক প্রয়োগ ও বর্তমান আইনে জরিমানার পরিমান বেশি হওয়ায় মানুষের মধ্যে সচেতন বেড়েছে। সে কারণে দুর্ঘটনাও কমেছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ডিজিটাল পান্স মেশিনের মাধ্যমে মামলা দেওয়া হয়ে থাকে। কোন প্রকার ভোগান্তী ছাড়াই দোকান থেকে টাকা জমা দিয়ে এসএমএস নিয়ে অফিসে আসলেই মামলা নিষ্পত্তি করে কাগজপত্র ফেরৎ দেওয়া হয়ে থাকে। মামালা নিষ্পত্তির ক্ষেত্রেও কমেছে ভোগান্তী।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম (বার) বলেন, বর্তমান মোটরযান আইনে জরিমানার পরিমান অনেক বেশি। সে কারণে মানুষের মধ্যে আইন মানার একটা প্রবনতা লক্ষ করা যাচ্ছে। আগে মানুষের মধ্যে হেলমেট পরার প্রতি অনিহা দেখা গেলেও বর্তমান সে চিত্র পাল্টে গেছে। সে কারণে আগের চেয়ে সড়ক দুর্ঘটনাও অনেক অংশে কমেছে।

তিনি আরও বলেন, কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় পুলিশ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে। এ জন্য জেলার সাত উপজেলায় সার্বক্ষণিক চালু রয়েছে ২৭টি চেকপোস্ট। এছাড়াও ট্রাফিক বিভাগ নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে অবৈধ মোটরযানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে। সড়কে অবৈধ মোটরযানের বিরুদ্ধে নিয়মিত জরিমানা ও মামলা করেছে। তবে, জরিমানা কোন সমাধান নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে মামলা বা জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার কাজটিও করে যাচ্ছি ।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2019-2020 । কুষ্টিয়া অনুসন্ধান
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580